নিজেকে পরিপাটি রাখার কয়েকটি উপায়

আধুনিক জীবনে সবাইকে ঘরে বাইরে দু জায়গাতেই পরিপাটি থাকতে হয়। আমরা প্রত্যেকেই যে যার মতো নিজেকে পরিপাটি রাখতে চাই।পরিপাটি থাকার মূল চাবিকাঠি রয়েছে নিজের হাতেই।

 

আজকাল সবাই সবসময় সুন্দর ও পরিপাটি থাকতে চান,যেন নিজেকে সুন্দর ভাবে আকর্ষণীয় ভাবে উপস্থাপন করা যায়।

 

পরিপাটি থাকবো বললেই কিন্তু পরিপাটি থাকা যায় না,কয়েকটি নিয়ম মেনে চললেই আপনি ঘরে বাইরে সবসময় পরিপাটি থাকতে পারবেন।

 

পরিপাটি থাকার প্রথম ও প্রধান শর্ত হলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকা। প্রতিদিন নিয়ম করে গোসল করতে হবে। চোখ,চুল,দাঁত শরীরের প্রতিটি অঙ্গ পরিষ্কারের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। চোখে ময়লা বা হলদেটে দাঁত অথবা তেল চিটচিটে দুর্গন্ধযুক্ত চুল সবকিছুই পরিপাটি থাকার পরিপন্থী। তাই প্রতিদিন নিয়ম করে গোসলের সাথে সাথে শরীরের অন্যান্য অঙ্গ পরিস্কার করাও বাধ্যতামূলক।

নিজেকে-পরিপাটি-রাখার
নিজেকে পরিপাটি রাখার কয়েকটি উপায় © pinterest

 

পরিষ্কার কাপড় পরিধান করতে হবে। কাপড় দামি বা ব্রান্ডের হতে হবে এমন কোন কথা নেই।কুঁচকানো কাপড় পরা যাবেনা কোনো অবস্থাতেই। পরিপাটি থাকতে হলে আয়রন করা ভাঁজহীন কাপড় পরতে হবে।

 

পোশাক পরিধানের ব্যাপারে সচেতন হতে হবে। পরিস্কার পোশাক পরিধানের সাথে সাথে পোশাকের ফিটিং এর দিকেও নজর দিতে হবে। হাল ফ্যাশন পুরোপুরি অনুসরণ না করলেও সেই সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে। উল্টো স্রোতে গা না ভাসিয়ে নিজের পছন্দ ও রুচির সাথে এডজাস্ট করে পোশাক পরতে হবে। কোথায় যাচ্ছেন সেখানকার পরিবেশ বুঝে পোশাক নির্বাচন করুন। দিন ও রাত ভেদে পোশাকের রং নির্বাচন করুন ।আর ভাঁজহীন পোশাক পরলে সবসময় পরিপাটি আছেন তাই মনে হবে।

 

জুতা বা শু ব্যবহারের ক্ষেত্রেও পরিচ্ছন্নতা অপরিহার্য। সেইসাথে দাম বা ব্র্যান্ডকে প্রাধান্য না দিয়ে আরামদায়ক কিনা সেই দিকে নজর দেয়া প্রয়োজন,যেন আপনি স্বাচ্ছন্দে চলাফেরা করতে পারেন। পোশাকের মত জুতাও জায়গা বুঝে পরবেন। আর পোশাকের সাথে মানানসই জুতা বা শু পরিধান করতে হবে।

 

পোশাক ও জুতার সাথে মানানসই ব্যাগ নিতে ভুলবেন না। ব্যাগে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় দরকারি জিনিস রাখবেন। অযথা অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে ব্যাগ ভরিয়ে রাখবেন না। ব্যাগ থেকে প্রয়োজনীয় জিনিস ঠিক সময় মত খুঁজে পাওয়া থেকেই বুঝা যাবে আপনি কতটা পরিপাটি।

নিজেকে-পরিপাটি-রাখার
নিজেকে পরিপাটি থাকার  জন্য  চুলগুলো নিয়মিত পরিষ্কার রাখতে হবে ©bebeautiful

 

পরিপাটি থাকার আর একটি উপায় হলো চুলগুলো নিয়মিত পরিষ্কার রাখা। নিয়মিত চুল আঁচড়াবেন,অগোছালো চুল আপনাকে অগোছালো ভাবেই উপস্থাপন করবে। মেয়েরা চুল আঁচড়িয়ে পনিটেল বা বিনুনি করবেন,আর ছেলেরা চুল আঁচড়িয়ে চুল পরিপাটি থাকার জন্য চুলে জেল দিতে পারেন। মেয়েরা সবসময় চুল পরিপাটি রাখতে এটা ছোট চিরুনি হাতব্যাগে রাখতে পারেন।

 

বাইরে বের হতে ঠোঁটে মেয়েরা সবসময় ঠোঁটে ভেসলিন বা লিপস্টিক ব্যবহার করবেন। ঠোঁট যেন কোনো অবস্থাতেই ফাটা না থাকে,ফাটা ঠোঁট আপনার পরিপাটি ব্যক্তিত্বের পরিপন্থী। তাই মেয়ে বা ছেলে উভয়েই ঠোঁটে লিপবাম দিতে পারেন। ছেলেরা বাইরে যেতে প্রয়োজনে এটি পকেটে আর মেয়েরা ব্যাগে রাখবেন সবসময়। নিজেকে হঠাৎ করে সাজিয়ে পরিপাটি রাখতে এই জিনিসের কোনো তুলনা নেই। ঠোঁট কালো হওয়া থেকে এটি রক্ষা করে।

 

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ত্বকে টোনার ব্যবহার করুন। ঘরে বা বাইরে উভয় জায়গাতেই যদি গরম থাকে তবে টোনার ব্যবহারের ফলে ত্বকে আদ্রতা বজায় থাকে। মেয়েরা মেকআপ করার আগে টোনার ব্যবহার করলে মুখে মেকআপ এর স্থায়িত্ব বাড়ে। মুখে মেকআপ অনেকক্ষণ রাখার জন্য একটুকরো বরফ সুতিকাপড়ে পেঁচিয়ে মুখে কিছুক্ষন ঘষে নিন।

 

ছেলে মেয়ে উভয়ই মুখে টোনার হিসেবে গোলাপজল ব্যবহার করতে পারেন। ত্বকের আদ্রতা ঠিক থাকা ও মেকআপ মুখে ঠিকঠাক থাকা আপনার পরিপাটি সৌন্দর্য্যকে বুঝায়।

 

বাইরে বের হলে অবশ্যই রোদচশমা নিয়ে বের হবেন। আজকাল হালফ্যাশনের অনেক ডিজাইনের রোদচশমা পাওয়া যায়। আপনার চেহারার সাথে মানানসই রোদচশমা নির্বাচন করুন। বড় গ্লাসের চশমা ব্যবহারের চেষ্টা করবেন,এটা আপনার চোখের সাথে সাথে চোখের ত্বকে বলিরেখা পড়া থেকে বাঁচবে। রোদে বের হয়ে সূর্যের আলোতে অযথা চোখ কুঁচকে না তাকিয়ে রোদচশমা ব্যবহার করা আপনার পরিপাটি থাকারই লক্ষণ।

 

বাইরে বের হওয়ার জন্য রোদচশমার মত আর একটি প্রয়োজনীয় জিনিস হলো ছাতা। বৈশ্বিক উষ্ণায়নের জন্য প্রখর সূর্যের আলো থেকে নিজেকে বাঁচানোর উপায় হলো ছাতা ব্যবহার করা। এটা আপনার ত্বক রোদে পুড়ে যাওয়া থেকে যেমন রক্ষা করে তেমনি আপনার মুখে বলিরেখা পড়তে দেয়না। আপনি নিজের সম্পর্কে সচেতন হলে ও পরিপাটি থাকতে চাইলে অবশ্যই ছাতা ব্যবহার করবেন।

goggles.blog
চোখের পাতায় হালকা আইশেড©cosmopolitan

 

মেয়েরা চোখের পাতায় হালকা আইশেড ,চোখে হালকা কাজল ও আইলেশে মাশকারা লাগাবেন। মুখে হালকা ব্লাশনের ছোঁয়া আপনাকে আরো বেশি পরিপাটি করে তুলবে।

 

পোশাক ও পরিবেশের সাথে মিলিয়ে এক্সেসারিজ পরবেন। তবে তা যেন অবশ্যই আপনার অন্যান্য জিনিসের সাথে মানানসই হয়। ভালো লাগলেও উদ্ভট বা জবরজং কোনো কিছু পরবেন না।

 

ছেলে মেয়ে উভয়ই জেন্ডার ভেদে পারফিউম, বডি স্প্রে ব্যবহার করবেন। তবে কিছু পারফিউম আছে যা ছেলে মেয়ে উভয়েই ব্যবহার করতে পারে। কোথায় যাচ্ছেন ,সেই জায়গার পরিবেশ বুঝে সুগন্ধি নির্বাচন করুন। সুগন্ধিতে যেন উগ্রতা না থাকে,যাতে অন্যের বিরক্তির কারণ হয়ে না দাঁড়ায়। সুন্দর সুগন্ধি নির্বাচন আপনার পরিপাটি থাকা ও ব্যক্তিত্ব প্রকাশে সহায়ক।

 

প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে সালাদ ও সবজি খান। ৮-১২ গ্লাস পানি নিয়মিত পান করুন। প্রতিদিন টানা ৭-৮ ঘন্টা ঘুমান। এতে চোখের স্বাস্থ্য ও এর চারপাশের ত্বক ও ভালো থাকে। ঘুম আমাদের দেহকে চাঙ্গা রাখে এবং আমাদের মনকেও ভালো রাখে,ফলশ্রুতিতে মন ভালো থাকায় আমরা আমাদের পরিপাটি ভাবে রাখতে পারি যাতে আমাদের দেখতেও ভালো লাগে।
এইসব সুঅভ্যাস গুলো আপনাকে স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করতে সহায়তা করে।

 

আরো পড়ুন : ছবিতে কীভাবে নিজেকে দুর্দান্ত করে তুলবেন

 

সুষম খাবার গ্রহণ করবেন,পর্যাপ্ত পানি পান ও পর্যাপ্ত ঘুম আপনাকে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী করে গড়ে তুলতে সাহায্য করবে। যা পক্ষান্তরে আপনাকে পরিপাটি ভাবে চলতে আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে। আপনি দেখতে যেমনি হোন না কেন সুন্দর ভাবে নিজেকে পরিপাটি করে নিজেকে গুছিয়ে রাখলে অবশ্যই সবসময় সুন্দর ও আকর্ষণীয় থাকা যায়।


This is a Bengali article on how to keep one self organized.

Reference-

1.How to Organize Your Life: 10 Habits of Really Organized People

2.A Guide to Good Personal Hygiene – Healthy Living Center

3. Personal hygiene – Department of Health

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...