জরুরি মুহূর্তে নিখুঁত মেকআপ: সমাধান কী?

ত্বকে ঠিকমতো মেকআপ হওয়ার প্রথম শর্ত হলো ত্বকের ময়শ্চারাইজার লেভেল ঠিক থাকা। তারপর ত্বকের ধরন বুঝে ফাউন্ডেশন নির্বাচন করা।

জরুরি মুহূর্তে নিখুঁত মেকআপ: সমাধান কী?

 

প্রতিদিনই আমাদের নানা কাজে বাইরে যেতে হয়। আর হরহামেশাই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ  দিতে হয়। এজন্যই আমাদের প্রতিনিয়ত কিছুটা সময় সাজগোজের জন্য বরাদ্দ রাখতে হয়। প্রতিদিনই আমরা নিজেকে একটু প্রেজেন্টেবল ভাবে উপস্থাপন করতে পছন্দ করি। ঠিকমতো মেকআপ করতে পারাও একটা আর্ট। মেকআপ করা সুন্দর একটি শিল্পসৃষ্টির থেকে কোনো অংশে কম নয়। তবে সবসময় সময় নিয়ে নিখুঁত মেকআপ করার মত পর্যাপ্ত সময় ও থাকে না।

 

আবার, অনেকে মনে করেন পারফেক্ট মেকআপ এর জন্য প্রয়োজন দামি দামি ব্র্যান্ড এর প্রোডাক্টের। কিন্তু সাজ মানেই একগাদা মেকআপ ব্যবহার করা নয়। দামি ব্র্যান্ড এর চাইতেও প্রয়োজন হলো ত্বকের ধরন ও রং এর জন্য সঠিক মেকআপ নির্বাচনের। আর এর জন্য প্রয়োজন কিছু অনুশীলন আর সতর্কতার। তার জন্য চাই নিখুঁত দক্ষতা, ধৈর্য্য আর প্রচুর অনুশীলনের।

 

নিখুঁত-মেকআপ
নিখুঁত মেকআপ ©freepik

 

তবে আমরা আজ কোন ব্র্যান্ডের মেকআপ নির্বাচনে যাবো না,বরং আমাদের আজকের আর্টিকেল হলো ঝটপট নিখুঁত মেকআপ কীভাবে করা যায় তা নিয়ে।

তো চলুন জরুরি মুহূর্তে ঝটপট নিখুঁত মেকআপ করার জন্য জেনে নেই কিছু প্রয়োজনীয় মেকআপ হ্যাকস।

 

১. ত্বকে ঠিকমতো মেকআপ হওয়ার প্রথম শর্ত হলো ত্বকের ময়শ্চারাইজার লেভেল ঠিক থাকা। তারপর ত্বকের ধরন বুঝে ফাউন্ডেশন নির্বাচন করা। তাই প্রথমেই ত্বক পরিষ্কার করে ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিতে হবে। কিন্তু যখন প্রশ্ন আসে জরুরি মুহূর্ত আর ঝটপট মেকআপ এর, তখন এত সময় নষ্ট করার সময় কোথায়?

আর তাই প্রথমেই ব্রাশ বা বিউটি ব্লেন্ডারের সাহায্য ছাড়া হাতেই ফাউন্ডেশন ও ময়শ্চারাইজার দুটো একসাথে মিক্স করে বানিয়ে নিতে পারেন ময়শ্চারাইজিং ফাউন্ডেশন। এতে মেকআপ ত্বকে ভালোভাবে বসে তা বেশ নমনীয় ও কমনীয় দেখাবে। তবে,ত্বকে বেশি দাগ থাকলে ময়শ্চারাইজার লাগানোর আগে দাগ এর উপর একটু কনসিলার লাগিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। ফাউন্ডেশন লাগানো হলে তবে এর উপর ফেস পাউডার বুলিয়ে নিন।

 

২. তারপর, প্রথমেই আসি চোখ এর মেকআপে। ঝটপট মেকআপ করার ক্ষেত্রে আইশেড পাউডার ব্যবহার না করে বরং আমরা ব্রাউন,পিঙ্ক,পার্পল রং এর লিকুইড লিপস্টিক চোখের পাতায় লাগিয়ে তা ভালোভাবে মিশিয়ে নিলেই আই-শেডের কাজ হয়ে যাবে। এই আইশেড এর উপর সামান্য হাইলাইটারের ব্যবহার আপনার চোখকে অনেক বেশি আকর্ষণীয় করে তুলবে। এরপর চোখের আইলিডে সুন্দর করে কাজল লাগিয়ে নিন।

নিখুঁত-মেকআপ
নিখুঁত মেকআপ © pinterest

 

৩. তবে চোখের পারফেক্ট লুক দিতে ঘন আইলেশ এর কোনো জুড়ি নেই। তাই ফেক আইলেশ লাগানোর ঝামেলায় না গিয়ে মাশকারা লাগিয়ে নিন। আইলেশ গাঢ় ও ঘন দেখানোর জন্য মাশকারা লাগানোর আগে আইলেশে বেবি পাউডার লাগিয়ে নিন। প্রথমে উপরের আইলেশ এ নীচ থেকে একবার ও এরপর উপর থেকে আর একবার ব্রাশ করলেই ঘন দেখাবে আইলেশ।

 

ঠিক একইভাবে নিচের আইলেশ গুলো ও ব্রাশ করে নিন। চোখের পাতায় যেন মাশকারা না লাগে তাই মাশকারা লাগানোর আগে চোখের পাতায় চামচের উল্টো দিকের গোলাকার অংশটি ধরে তারপর স্বাভাবিক নিয়মে মাশকারা লাগিয়ে নিবেন সহজেই।

 

৪. সুন্দর ভাবে আইব্রো আকঁতে পারলেই আমাদের মুখের সৌন্দর্য্যটা অনেক কমনীয় ও আকর্ষণীয় হয়ে উঠে। দ্রুত কিন্তু নিখুঁত মেকআপ এর জন্য তাই আইব্রোর উপর মাশকারা ব্রাশ করে পছন্দনীয় আকৃতি দিয়ে নিন। এতে আইব্রো খুব ঘন ও গাঢ় দেখাবে।

মেকআপ
নিখুঁত মেকআপ © pinterest

 

৫. আপনি আপনার মেকআপ পারফেক্ট করার জন্য হাতের কাছে ব্লাশ না পেলেও চিন্তার কিছু নেই। আপনি যে লিপস্টিক ব্যবহার করেন,সেটাই আপনি গালে ব্লাশ হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন। তবে সব রং এর লিপস্টিক ব্যবহার করা যাবেনা। এক্ষেত্রে পিচ,পিঙ্ক,মভ এইসব রঙ এর লিপস্টিক ব্যবহার করতে হবে। পছন্দের রং এর লিপস্টিক আপনি আপনার ব্লাশ এরিয়াতে লাগিয়ে নিয়ে আঙুলের সাহায্যে মিশিয়ে নিন। এতে দ্রুত আপনার কাজটি শেষ হবে।

 

৬. সবশেষে আসি লিপস্টিক এর কথায়। পছন্দনীয় রং এর লিপস্টিক নির্বাচন করে তা ঠোঁটে লাগিয়ে নিন। তবে তাড়াহুড়োয় লিপস্টিক ছড়িয়ে যেতে পারে বা এর স্থায়িত্ব দীর্ঘ সময় ধরে নাও থাকতে পারে। এর হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে ব্যবহার করতে হবে ম্যাট লিপস্টিক। হাতের কাছে ম্যাট লিপস্টিক নাও থাকতে পারে। এতে চিন্তার কিছু নেই। ঠোঁটের উপর লিপস্টিক লাগিয়ে এর উপর হালকা পাউডার বুলিয়ে নিলেই চলে আসবে ম্যাট লুক। এরপর কয়েক ঘন্টার জন্য একদম নিশ্চিন্তে থাকুন।

 

তবে লিপস্টিক এর ঝামেলায় না গিয়ে ঠোঁটে ঝটপট লিপগ্লস লাগিয়েও কাজ চালিয়ে দিতে পারেন।

 

৭. আপনার সাজগোজের শেষ ধাপ হলো মুখে হাইলাইটের প্রলেপ দেয়া। হাইলাইটার আপনার মুখে একটা সুন্দর গ্লো এনে দিবে। তাই একটা মেকআপ ব্রাশ দিয়ে হাইলাইটার আপনার কপাল,নাকের দুপাশে ও ব্লাশন এরিয়াতে বুলিয়ে নিন। ব্যস, শেষ হয়ে গেল আপনার ঝটপট নিখুঁত মেকআপ করা।

 

এই কয়েকটি মেকআপ হ্যাকস অনুসরণ করলেই জরুরি মুহুর্তে খুব ঝটপট আপনি আপনার মেকআপ করার কাজ অনায়াসে নিখুঁত ভাবেই করতে পারবেন।

তবে মেকআপ করার সবচেয়ে প্রয়োজনীয় ধাপ হলো মুখের বেস টা ঠিকঠাক মত করা ও মুখের দাগ ও খুঁতগুলোকে কনসিলার দিয়ে ঢেকে দেয়া,তাহলে তার উপর আপনি যাই লাগান না কেন তা আপনার মুখমণ্ডলকে করে তুলবে সুন্দর ও আকর্ষণীয়।

নিখুঁত মেকআপ © এনা সাহা

 

মেকআপ করার সময় আর একটা ব্যাপারের দিকে খেয়াল রাখবেন, সেটা হলো পর্যাপ্ত আলো। অর্থাৎ আপনি যেখানে মেকআপ করবেন ওখানে যেন পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা থাকে। দিনের বেলায় মেকআপ করলে ন্যাচারাল আলোতেই করার চেষ্টা করবেন। তাহলে আপনার মুখের খুঁত ও দাগগুলো সহজেই দেখা যাবে আর মেকআপ করাও অনেকটাই সহজ হয়ে উঠবে।

 

আরো পড়ুন : আপনার ত্বক এবং চুল সুস্থ রাখতে চান? এই গাছগুলি বাড়িতে আনুন

 

রাতের বেলায়ও পর্যাপ্ত আলোকিত স্থান মেকআপ করার জন্য নির্বাচন করবেন। যাতে মেকআপ নিখুঁতভাবে সম্পন্ন করা যায়। সুন্দর মেকআপই আপনার মুখকে করে তুলবে আকর্ষণীয় ও সুন্দর।

আশা করি এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাজে আসবে এবং ভালোও লাগবে।


This is a Bengali article on quick makeup hacks. 

Feature Image : মধুমিতা 

References-

1. Best Makeup Tips and Hacks

2.Easy Makeup And Beauty Hacks 

3.Seven office makeup tips to get the perfect work makeup look.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...